Italy Visa | ইতালি ভিসা আবেদন করার নিয়ম

আপনি কি Italy Visa – ইতালি ভিসা আবেদন করার নিয়ম সম্পর্কে জানতে চান? তাহলে আর্টিকেলটি আপনার জন্য। আর্টিকেলটি পড়ে আপনি ইতালি ভিসা আবেদন সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবেন এবং আপনি চাইলে এখান থেকেও আবেদন করতে পারবেন। তাহলে চলুন শুরু করা যাক।

ইতালি ভিসা আবেদন করার নিয়ম
ইতালি ভিসা আবেদন করার নিয়ম

Italy Visa – ইতালি ভিসা কয় ধরনের হয়?

ইতালি ভিসা সাধারণত বিভিন্ন ধরণের হয়ে থাকে। তবে বাংলাদেশে মূলত দুই ধরণের ইতালি ভিসা পরিচিত। যথা:

  • সিজনাল ভিসা বা অস্থায়ী ভিসা।
  • নন সিজনাল ভিসা বা স্থায়ী ভিসা।

এছাড়াও আরো অনেক রকম ইতালি ভিসা রয়েছে। যেমন:

  • ফ্যামেলি ভিসা।
  • পুনঃপ্রবেশ ভিসা ।
  • দক্ষ কর্মী ভিসা।
  • স্টুডেন্ট ভিসা।
  • আত্মকর্মসংস্থান ভিসা।
  • ব্যবসায়িক ভিসা।
  • ট্যুরিস্ট ভিসা।
  • চিকিৎসা ভিসা।
  • ইউ/ইইউ নাগরিকের আত্মীয় ভিসা।
  • নাবিক ভিসা।
  • ধর্মীয় প্রোগ্রাম মূলক ভিসা।

চলুন আমরা সিজনাল ভিসা ও নন সিজনাল ভিসা সম্পর্কে আগে বিস্তারিত জেনে নেই। তারপর ইতালি ভিসা আবেদন করার নিয়ম সম্পর্কে জানবো।

Italy Seasonal Visa – ইতালি সিজনাল ভিসা কি?

Italy Schengen Visa বা ইতালি সিজনাল ভিসা হচ্ছে স্বল্প মেয়াদি একটি ভিসা। এই ভিসার মাধ্যমে ইতালিতে ছয় মাস পর্যন্ত অবস্থান করা যাবে। অর্থাৎ, সিজনাল ভিসার মাধ্যমে ছয় মাসের চুক্তিতে ইতালিতে অবস্থান করে কাজ করা যাবে। ছয় মাস শেষ হয়ে গেলে উক্ত ভিসার মালিককে দেশে ফিরে আসতে হয়। না হলে উক্ত ব্যক্তি ইতালিতে অবৈধ বলে বিবেচিত হবে। দীর্ঘ প্রায় আট বছর পর বাংলাদেশিদের জন্য খুলেছে ইতালি সিজনাল ভিসা।

ইতালি সিজনাল ভিসাতে সাধারণত কৃষি, হোটেল, টুরিজম বিষয়ক কাজের জন্য লোক নেওয়া হয়ে থাকে। ছয় মাস পর কাজের চুক্তি শেষে দেশে ফিরে আসতে হয় এসব লোকদের। এক সময় বাংলাদেশ থেকে ইতালিতে নিয়মিত সিজনাল ভিসা দিয়ে লোকজন আসত ইতালিতে। নিয়ম অনুযায়ী, এই ধরনের লোকজন ছয় মাস পরে দেশে ফিরে যেতে হয়। কিন্তু বাংলাদেশ থেকে আসা শ্রমিকরা সিজনাল ভিসায় ইতালিতে প্রবেশ করার পর কেউ আর দেশে ফিরে আসতো না। আর এই জন্যই বাংলাদেশকে এই সুযোগ থেকে বাদ দিয়ে দেওয়া হয়। ২০১২ সাল থেকে ইতালি ভিসা বন্ধ ছিল। তারপর দীর্ঘ আট বছর পর ২০২০ সাল থেকে আবার এই ভিসা চালু করলো ইতালি সরকার।

Italy Non Seasonal Visa – ইতালি নন সিজনাল ভিসা কি?

Italy Non Seasonal Visa – ইতালি নন সিজনাল ভিসা হচ্ছে স্থায়ী ভিসা। নন সিজনাল ভিসাকে জাতীয় ভিসাও বলা হয়ে থাকে। এই ভিসার মাধ্যমে আপনি যতদিন ইচ্ছা ইতালিতে থাকতে পারবেন। আপনি চাইলে সেখানে স্থায়ীভাবে বসবাসও করতে পারবেন। এই ভিসার মাধ্যমে আপনি স্থায়ী কাজ, নিজের কোন ব্যবসা, বা অন্যান্য স্থায়ী যেকোন বিষয়ের জন্য আপনি ইতালিতে অবস্থান করতে পারবেন।

Italy Visa – ইতালি ভিসা আবেদন করার নিয়ম

এখন আমরা ইতালি ভিসা আবেদন করার নিয়ম সম্পর্কে জানবো। ইতালি ভিসার আবেদন ছয়টি ধাপে সম্পন্ন হয়ে থাকে। নিচে ছয়টি ধাপ সম্পর্কে আলোচনা করা হলো।

১. নিজেকে যাচাই করে নিন

প্রথম ধাপে আপনার কোন ধরণের ভিসা প্রয়োজন তা নির্ধারণ করতে হবে। তারপর আপনি উক্ত ভিসার জন্য আবেদনের যোগ্য কিনা তা যাচাই করে নিতে হবে। আপনার আবেদনের সাথে আপনার যে ডকুমেন্টগুলি জমা দিতে হবে সেগুলি সম্পর্কে আপনার ধারণা থাকতে হব। যেমনঃ অ্যাপ্লিকেশনটি কত সময় নিতে পারে এবং আপনাকে কত টাকা জমা দিতে হবে।

প্রতিটি ভিসার আবেদন অবশ্যই আপনার ভিসা বিভাগের জন্য প্রযোজ্য নির্দেশিকাগুলি মেনে চলবে। যদি আপনার কাগজপত্র গুলো ইংরেজী না হয় তবে আবেদন করার আগে আপনাকে অনুবাদ করে নিতে হবে।

২. আপনার ভিসা আবেদন শুরু করুন

আপনি আবেদন করার জন্য প্রস্তুত হয়ে গেলে এখানে আবেদন করুন:




https://bit.ly/2FqBh6h “ডি প্রকার (দীর্ঘমেয়াদী)” বা https://bit.ly/3iKY6A6 “অ্যাপ্লিকেশন ফর্ম সি ধরণের (স্বল্প মেয়াদী)” হিসাবে প্রযোজ্য, এটিকে পূরণ করুন। সম্পূর্ণ ফর্মটি প্রিন্ট করুন এবং জমা দেওয়ার জন্য ভিসা আবেদন কেন্দ্রে এটি আপনার সাথে আনুন। সংশ্লিষ্ট ভিসা বিভাগের চেকলিস্ট অনুযায়ী প্রয়োজনীয় কাগজপত্র সাথে নিয়ে আসুন।

৩. একটি ভিসা অ্যাপ্লিকেশন কেন্দ্র পছন্দ করুন এবং একটি অ্যাপয়েন্টমেন্ট করুন

এবার আপনি আবেদন ফর্মটি পূরণ করে এবং চেকলিস্ট অনুসারে নথিগুলি সাজিয়ে নিলে আপনার আবেদন জমা দেওয়ার জন্য আপনার ভিসা আবেদন কেন্দ্রে গিয়ে একটি অ্যাপয়েন্টমেন্ট বুক করতে হবে।

একবার অ্যাপয়েন্টমেন্ট সাফল্যের সাথে পেয়ে গেলে আপনি নিবন্ধিত ইমেল আইডি সহ অ্যাপয়েন্টমেন্ট পত্র পাবেন। আপনি যদি পরিবার বা গোষ্ঠীর অংশ হন তবে আপনার পরিবার বা গোষ্ঠীর প্রতিটি সদস্যের জন্য আলাদা অ্যাপয়েন্টমেন্ট বুক করতে হবে।

৪. আপনার ভিসা ফি প্রদান করুন

ভিসা আবেদন কেন্দ্রের কাউন্টারে ভিসা ফি এবং পরিষেবা ফি প্রদান করুন।

বিঃ দ্রঃ কোর্সের সময়কাল যদি ৯০ দিনের মধ্যে হয়, তবে ভিসা ফি গ্র্যাচুয়েটিগুলি উপরের তালিকায় উল্লিখিত ব্যতীত বিভিন্ন কারণে প্রযোজ্য হবে। ইউরো থেকে বিডিটির এক্সচেঞ্জের হার প্রতি তিন মাসে পরিবর্তন করতে পারে। আবেদনকারীদের আবেদন করার আগে ওয়েবসাইট থেকে ফি নিশ্চিত করার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে।

এই সাইটে একটি প্রিমিয়াম পরিষেবা বিকল্পের সাথে সংযুক্ত রয়েছে। সমস্ত সিস্টেমের ভিসা এবং যাচাইকরণ অ্যাপ্লিকেশন সেন্টারের (আইভিএলএসি) কাউন্টারের কাউন্টারে নগদ (উপযুক্ত পরিমাণ) প্রদানের জন্য সমস্ত ফি প্রদান করতে হবে, তারপরে সিস্টেম-উত্পন্ন চালানটি প্রাপ্তির সাথে রসিদ হবে। ভিসার ফি সহ উল্লিখিত চার্জগুলি আবেদনকারীর জন্য প্রযোজ্য। ভিসা ফি অফেরতযোগ্য।

৫. আপনার ভিসার আবেদন ট্র্যাক করুন

আপনার ব্যপারে সিদ্ধান্তটি ভিসা অ্যাপ্লিকেশন সেন্টারে ফিরে আসার পরে আপনি একটি ফোন কল পাবেন (আবেদন জমা দেওয়ার সময় আপনি প্রদত্ত যোগাযোগের নম্বরটি পাবেন।

আপনি এখান থেকে অনলাইনে আপনার ভিসার আবেদন ট্র্যাক করতে পারবেন- https://bit.ly/3gYkYeZ। এই পরিষেবাটি অ্যাক্সেস করতে আপনার শেষ নামটি দিয়ে ভিসা অ্যাপ্লিকেশন সেন্টার দ্বারা চালিত চালান অথবা রসিদে রেফারেন্স নম্বরটি ব্যবহার করুন।

৬. আপনার পাসপোর্ট গ্রহণ করুন

আবেদন কেন্দ্র থেকে আপনার পাসপোর্ট পান বা আপনি সেন্টার কুরিয়ার সার্ভিসে ভিএফএস কেন্দ্র পেতে পারেন।

  • সমস্ত প্রাপ্তবয়স্ক আবেদনকারীদের নিজেরাই পাসপোর্ট সংগ্রহ করতে হবে।
  • ১৮ বছরের কম বয়সী আবেদনকারীদের পাসপোর্ট সংগ্রহ করার জন্য অভিভাবকরা আসতে হবে।
  • পরিচয়পত্রের দলিল সংগ্রহ করার সময় মূল রসিদ এবং একটি ফটোকপি অবশ্যই কেন্দ্রে নিয়ে আসতে হবে।
  • সংগ্রহের সময়: ১২০০ থেকে ১৩০০ ঘন্টা।

আমেরিকান ডিবি লটারিতে আবেদন করুন এখানে

Italy Visa Application – ইতালি ভিসা আবেদন কয়টি পদ্ধতিতে করা যায়?

ইতালি ভিসার আবেদন আপনারা দুইটি পদ্ধতিতে করতে পারবেন।

ইতালি ভিসা খরচ

প্রথম পদ্ধতিঃ কোন আত্মীয়-স্বজন ইতালিতে থাকলে অথবা পরিচিত বা কাছের কেউ ইতালি থাকলে তাদের মাধ্যমে ইতালি সরকারের কাছে আপনি আবেদন করতে পারবেন।

দ্বিতীয় পদ্ধতিঃ কোন প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে তাদের সাথে কাজের চুক্তি করে আবেদন করতে পারেন। মনে রাখবেন, আবেদন করা মানে ইতালিতে চলে যাওয়া না। আবেদন করার পর আপনি নির্বাচিত হলে বাকি কাজগুলো করে নিতে হবে‌। মনে রাখবেন, এই প্রক্রিয়ায় ইতালি যাওয়া সময় সাপেক্ষ ব্যাপার। অযথা, ভুল জায়গায় হয়রানির শিকার হবেন না।

Italy Visa – ইতালি ভিসা আবেদন করার জন্য কি কি লাগবে?

ইতালি ভিসা আবেদন করার জন্য কিছু জিনিসের প্রয়োজন হবে। নিচে একটি তালিকা দেওয়া হলোঃ

  • পুরণকৃত ও আবেদনকারী দ্বারা স্বাক্ষরিত ভিসা আবেদন ফরম লাগবে।
  • নির্দেশিত ২ কপি ছবি লাগবে। ছবি ভিএফএস ফটো বুথ থেকেও তুলে নিতে হবে।
  • বৈধ পাসপোর্ট লাগবে।
  • প্রাসঙ্গিক চেকলিষ্ট অনুসারে সকল সমর্থক কাগজপত্র লাগবে।
  • ভিসা আবেদন ফিস, ভিএফএস এবং ব্যাঙ্ক এর বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রযোজ্য সার্ভিস চার্জ লাগবে।

ইতালি ভিসা আবেদনের ফি কত?

ইতালি ভিসা আবেদন ফি খুবই সামান্য। ভিসা অনুযায়ী আবেদন ফি ৬০০ থেকে ১২০০ টাকা পর্যন্ত হয়ে থাকে। তবে আপনি যদি কোন লয়্যার নিযুক্ত করেন তাহলে আপনাকে আলাদা ফি দিতে হবে। লয়্যার বাবদ আপনাকে ১০ থেকে ১৫ হাজার টাকার মতো খরচ করতে হবে।

বাংলাদেশ থেকে Italy – ইতালি যেতে খরচ কত হবে?

এই প্রশ্নটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি প্রশ্ন। এটা বোঝার জন্য লেখাটি ভালো করে পড়বেন। আপনাকে অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে যে, এখানে দুই ধরনের ভিসা রয়েছে। একটা হচ্ছে সিজনাল ভিসা, আরেকটা হচ্ছে নন সিজনাল ভিসা। যারা নন সিজনাল ভিসায় যাবে তারা ইতালিতে পার্মানেন্ট কাজ করতে পারবেন। তবে নন সিজনাল ভিসায় যারা যাবেন তাদের অবশ্যই অতিরিক্ত কিছু যোগ্যতা লাগবে।

আর যারা সিজনাল ভিসায় যাবে তারা সেখানে ৬ মাস পর্যন্ত থাকতে পারবেন। এখন আপনি এই সময়ে কত টাকা ইনকাম করতে পারবেন এবং কত টাকা দিয়ে আপনার যাওয়া উচিত হবে এটা আশা করি বুঝতে পেরেছেন। আপনি যে ব্যক্তির মাধ্যমে যাবেন অথবা যেই প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে যাবেন তারা আপনার কাছ থেকে খরচ বাবদ কত টাকা নিবে এটা আসলে একান্ত তাদের ব্যক্তিগত ব্যাপার।

মনে রাখবেন, কিছু মানুষ আপনাকে ভুলিয়ে-ভালিয়ে টাকাপয়সা নেয়ার জন্য ওৎ পেতে রয়েছে। তাদের খপ্পরে পরে টাকা পয়সা সব উজার করে দিবেন না। অবশ্যই বুঝে শুনে জেনে লেনদেন করবেন। আপনার সব থেকে ভালো হবে, যদি আপনার কোনো আত্মীয়-স্বজন বা কাছের মানুষ ইতালি থাকে তাদের মাধ্যমে ভিসার আবেদন করানো।

কানাডা ভিসার আবেদন করুন এখানে

বাংলাদেশে ইতালি ভিসা আবেদন কেন্দ্র কোথায়?

বাংলাদেশে ইতালি ভিসা এবং লিগালাইজেশন আবেদন কেন্দ্র ঢাকায় অবস্থিত। নিচে ঠিকানা দেওয়া হলোঃ

এ জে হাইটস (নীচ তলা),

চ-৭২/১/ ডি, প্রগতি সরণি,

উত্তর বাড্ডা ঢাকা-১২১২,

বাংলাদেশ।

Helpline: (+৮৮) ০৯৬০৬ ৭৭৭৬৬৬, এবং (+৮৮) ০৯৬৬৬ ৯১১৩৮৪ (মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীদের জন্য) (রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার ০৯০০ – ১৭০০)।

ইমেল: [email protected]

ওয়েবসাইট http://www.vfsglobal-it-bd.com

ইতালি ভিসা ২০২০
ইতালি ভিসা ২০২০

Visa Application – ভিসা আবেদন জমা দেয়ার জন্য এপয়েন্টমেণ্ট এর দরকার আছে কি?

ভিসা আবেদন জমা দেয়ার জন্য এপয়েন্টমেণ্ট এর জন্য এপয়েন্টমেণ্ট এর দরকার নাই। কোন প্রকার আবেদন করার জন্যই এপয়েনমেণ্ট এর দরকার নাই।

Visa Application – ভিসা আবেদন কেন্দ্রে অফিসিয়াল পাসপোর্ট জমা দেওয়া যাবে?

ব্যক্তিগত ভ্রমণ বা স্বায়ত্তশাসিত সংস্থার কর্মচারী হওয়ার কারণে যদি আবেদনকারী বাংলাদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নোট ভারবাল না পান সেক্ষেত্রে ইতালি ভিসা আবেদন কেন্দ্রে জমা করতে পারবেন। এই ধরনের ক্ষেত্রে, আবেদনকারী নিজ নিজ ভিসার আবেদনপত্রের প্রয়োজনীয় তালিকা ফলো করা উচিত।

ভিসা আবেদনপত্র জমা দেয়ার পর আমি কি করব?

আপনার আবেদনের অবস্থা ট্র‌্যাক করতে আপনি http://vfsglobal-it-bd.com/Bangla/track_application.html এই ওয়েবসাইটে লগ অন করুন, অথবা হেল্প লাইনের ইমেইল [email protected] অথবা ফোন, (+৮৮) ০৯৬০৬ ৭৭৭৬৬৬ (+৮৮) ০৯৬৬৬ ৯১১৩৮৪ এ যোগাযোগ করুন।

শুধুমাত্র ওয়েবসাইটে বর্ণিত প্রক্রিয়াকরণের নুন্যতম সময় পরে আপনার আবেদনপত্রগুলোর অবস্থা জানতে পারবেন। প্রত্যয়নের জন্য দয়া করে http://www.vfsglobal-it-bd.com/Bangla/legalization_level.html এই লিংকে ভিজিট করুন।

Italy Schengen Visa ক্ষেত্রে আমার স্বাক্ষাতকার কোথায় অনুষ্ঠিত হবে?

যদি আপনার স্বাক্ষাতকার প্রয়োজন হয়, তবে তা আপনাকে জানিয়ে দেওয়া হবে। স্বাক্ষাতকার হলে, আপনি ইতালির এম্বাসি, প্লট নং-২/৩, রোড নং ৭৪/৭৯, গুলশান – ২, ঢাকা-১২১২, ফোন: +৮৮-০২ ৯৮৪২৭৮১/২/৩, ফ্যাক্স: +৮৮-০২-৮৮২২৫৭৮, ওয়েবসাইট: www.ambdhaka.esteri.it. ইতালি ভিসা এবং লিগালাইজেশন আবেদন কেন্দ্রদ্বারা প্রদত্ত প্রাপ্তি রশিদে স্বাক্ষাতকারের সময় ও তারিখ উল্লেখ থাকবে । অথবা আপনাকে মোবাইলে জানানো হবে।

Visa Interview – স্বাক্ষাতকারের জন্য আমার কি নিয়ে আসতে হবে?

স্বাক্ষাতকারপত্র অথবা. ইতালি ভিসা এবং লিগালাইজেশন আবেদন কেন্দ্র দ্বারা প্রদত্ত প্রাপ্তি রশিদ এবং ইতালি এম্বাসি দ্বারা অনুরোধকৃত যে কোন কাগজপত্র নিয়ে আসতে হবে।

Visa Interview – স্বাক্ষাতকারের পর কি হবে?

www.vfsglobal-it-bd.com ওয়েবসাইটে লগ অন করে আবেদনপত্রের অবস্থান জানুন।আপনার জন্য বিনীত পরামর্শ এই যে, শুধুমাত্র ওয়েবসাইটে বর্ণিত প্রক্রিয়াকরণের নুন্যতম সময় পরে আপনার আবেদনপত্রগুলোর অবস্থা জানুন।

Schengen Visa – সেঞ্জেন ভিসার ক্ষেত্রে আমি কোথায় আমার পাসপোর্ট সংগ্রহের জন্য যাবো?

আবেদনের অবস্থা Italy Visa – ইতালি ভিসা এবং লিগালাইজেশন আবেদন কেন্দ্রএর হ্যাল্পলাইন: (+৮৮) ০৯৬০৬ ৭৭৭৬৬৬ এবং (+৮৮) ০৯৬৬৬ ৯১১৩৮৪ বা ওয়েবসাইট www.vfsglobal-it-bd.com থেকে জানার পর ইতালি ভিসা আবেদন কেন্দ্র এ রশিদ প্রদর্শন পূর্বক আপনার পাসপোর্ট ও অন্যান্য কাগজপত্রগুলো সংগ্রহ করুন।

আশা করছি, আপনি Italy Visa – ইতালি ভিসা সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পেরেছেন এবং ইতালি ভিসা আবেদন করার নিয়ম সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। তারপরেও আপনার যদি কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে কমেন্ট করে জানাতে পারেন। আমার আর্টিকেলটি পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। ভালো থাকবেন। আপনার জন্য রইলো শুভকামনা!

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *