বিশ্বের সেরা ১০০ জন মানুষের তালিকা

আপনি কি বিশ্বের সেরা ১০০ জন মানুষের তালিকা খুঁজছেন? তাহলে আর্টিকেলটি আপনার জন্য। আর্টিকেলটি থেকে আপনি পৃথিবীর সেরা ১০০ জন মানুষের তালিকা পাবেন। তাহলে চলুন শুরু করা যাক।

এই তালিকাটি “বিশ্বের ১০০ জন প্রভাবশালী ব্যক্তি” বইটির লেখক মাইকেল এইচ হার্ট দ্বারা নির্বাচিত একটি তালিকা। তিনি বিশ্বকে প্রভাবিত করতে সবচেয়ে বেশি কাজ করেছেন এমন লোকদের নিয়ে এই তালিকাটি তৈরি করেছেন।

আপনাকে বইটি পড়ার অনুরোধ করবো, কারণ এটি থেকে আপনি বিশ্বের সেরা মানুষদের সম্পর্কে জানতে পারবেন। লেখক বইটিতে নোট করেছেন যে, ‘প্রভাবশালী’  বলতে তারা বিশ্বকে আরও ভাল বা খারাপের জন্য প্রভাবিত করেছিল কিনা সে বিষয়ে কোনও রায় অন্তর্ভুক্ত এখানে করে না।

বিশ্বের সেরা ১০০ জন মানুষের তালিকা

১. হযরত মুহাম্মদ (সঃ) (570 – 632 খ্রিস্টাব্দ) ইসলামের নবী।

২. আইজাক নিউটন (1642 – 1727) – ব্রিটিশ গণিতবিদ এবং বিজ্ঞানী।

৩. যীশু নাসরত (c.5BC – 30 খ্রিস্টাব্দ) আধ্যাত্মিক শিক্ষক এবং খ্রিস্টান ধর্মের কেন্দ্রীয় ব্যক্তিত্ব।

৪. বুদ্ধ (সি 563 – 483 বিসি) আধ্যাত্মিক শিক্ষক এবং বৌদ্ধ ধর্মের প্রতিষ্ঠাতা।

৫. কনফুসিয়াস (551 – 479 বিসি) – চীনা দার্শনিক।

৬. সেন্ট পল (৫ – AD 67) – খ্রিস্টান ধর্মপ্রচারক এবং নিউ টেস্টামেন্টের অন্যতম প্রধান লেখক।

৭. Ts’ai Lun (AD 50 – 121) কাগজের উদ্ভাবক।

৮. জোহান গুটেনবার্গ (1395 – 1468) – প্রিন্টিং প্রেসের উদ্ভাবক।

৯. ক্রিস্টোফার কলম্বাস (1451 – 1506) – ইতালীয় এক্সপ্লোরার আমেরিকাতে এসেছেন।

১০. অ্যালবার্ট আইনস্টাইন (1879 – 1955) জার্মান / মার্কিন বিজ্ঞানীরা থিওরি অফ রিলেটিভিটি আবিষ্কার করেছিলেন।

১১. লুই পাস্তুর (1822 – 1895) ফরাসি জীববিজ্ঞানী। জলাতঙ্ক এবং অন্যান্য সংক্রামক রোগের নিরাময়ের বিকাশ ঘটেছে।

১২. গ্যালিলিও গ্যালিলি (1564 – 1642) ইতালিয়ান বিজ্ঞানী – মহাবিশ্বের হিলিওসেন্ট্রিক দৃষ্টিভঙ্গির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

১৩. অ্যারিস্টটল (খ্রিস্টপূর্ব 384 – খ্রিস্টপূর্ব 322) – গ্রীক দার্শনিক এবং পলিম্যাথ
ইউক্যালিড (খ্রি। 325 – 265 বিসি) – গ্রীক গণিতবিদ।

১৪. মূসা (সি 1391 – 1271 বিসি) ইহুদি / খ্রিস্টান ইতিহাসের একটি মূল ব্যক্তিত্ব ওল্ড টেস্টামেন্টের 10 টি আদেশ জারি করেছে।

১৫. চার্লস ডারউইন (1809-1882) – বিজ্ঞানী যিনি বিবর্তনের তত্ত্বের প্রস্তাব ও জনপ্রিয় করেছিলেন।

১৬. শিহ হুয়াং তি (২৫৯ – ২১০ খ্রিস্টপূর্বাব্দ) – কিন রাজ্যের রাজা যিনি খ্রিস্টপূর্ব ২২১ খ্রিস্টাব্দে চীনের বিভিন্ন অঞ্চল জয় করে একত্রিত করেছিলেন।

১৭. অগাস্টাস সিজার (BC৩ বিসি-AD 14) – রোমের প্রথম সম্রাট।

১৮. নিকোলাস কোপার্নিকাস (1473-1543) রেনেসাঁর গণিতবিদ এবং জ্যোতির্বিদ যিনি বিশ্বাস করেছিলেন যে সূর্য পৃথিবীর চেয়েও মহাবিশ্বের কেন্দ্র।

১৯. এন্টোইন লরেন্ট লাভোসিয়ার (1743 – 1794) ফরাসি রসায়নবিদ এবং জীববিজ্ঞানী, যিনি রাসায়নিক বিপ্লবটিতে অগ্রণী প্রভাব ফেলেছিলেন।

২০. কনস্টানটাইন দ্য গ্রেট (২2২ খ্রিস্টাব্দ – ৩77) রোমান সম্রাট যিনি খ্রিস্টান ধর্ম গ্রহণ করেছিলেন।

২১. জেমস ওয়াট (1736 – 1819) স্কটিশ প্রকৌশলী। ওয়াট একটি নতুন স্টিম ইঞ্জিন তৈরি করে একটি দক্ষ স্টিম ইঞ্জিন তৈরি করেছে।

২২. মাইকেল ফ্যারাডে (1791 – 1867) – ইংরেজ বিজ্ঞানী যিনি বৈদ্যুতিন চৌম্বকীয়তা এবং তড়িৎবিদ্যার ক্ষেত্রে ক্ষেত্রে অবদান রেখেছিলেন।

২৩. জেমস ক্লার্ক ম্যাক্সওয়েল (1831-1879) স্কটিশ পদার্থবিদ। ম্যাক্সওয়েল তড়িৎচুম্বকত্ব বোঝার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছিলেন।

২৪. মার্টিন লুথার (1483-1546) রোমান ক্যাথলিক চার্চ সংস্কার করার চেষ্টা করেছিলেন – প্রোটেস্ট্যান্ট সংস্কার শুরু করেছিলেন।

২৫. জর্জ ওয়াশিংটন (1732 – 1799) – আমেরিকার বিপ্লব চলাকালীন মার্কিন বাহিনীর নেতা এবং প্রথম আমেরিকার রাষ্ট্রপতি।

২৬. কার্ল মার্কস (1818 -– 1883) – জার্মান কমিউনিস্ট দার্শনিক।

২৭. অরভিল এবং উইলবার রাইট অরভিল (1871 – 1948) – উইলবার (1867 – 1912) – তৈরি এবং প্রথম বিমানটি উড়েছিল।

২৮. চেঙ্গিস কাহন (1162 – 1227) – মঙ্গোলদের সামরিক ও রাজনৈতিক নেতা।

২৯. অ্যাডাম স্মিথ (1723-1790) স্কটিশ সামাজিক দার্শনিক এবং শাস্ত্রীয় অর্থনীতির পথিকৃৎ।

৩০. উইলিয়াম শেক্সপিয়র (1564- 1616) ইংরেজি কবি এবং নাট্যকার।

৩১. জন ডাল্টন (1766 – 1844) ইংরেজি রসায়নবিদ এবং পদার্থবিদ। পারমাণবিক তত্ত্ব অবদান।

৩২. আলেকজান্ডার দ্য গ্রেট (356 -– 323 বিসি) – ম্যাসিডোনিয়ার রাজা এবং সামরিক নেতা।

৩৩. নেপোলিয়ন বোনাপার্ট (1769 18- 1821) – ফরাসি সামরিক এবং রাজনৈতিক নেতা।

৩৪. টমাস এডিসন (1847 – 1931) – উদ্ভাবক এবং ব্যবসায়ী বিদ্যুত এবং বৈদ্যুতিক আলোর বাল্বগুলি প্রবর্তন করতে সহায়তা করেছিলেন।

৩৫. অ্যান্টনি ভ্যান লিউউয়েনহোইক (1632-1723) ডাচ রসায়নবিদ – মাইক্রোবায়োলজির প্রতিষ্ঠাতা।

৩৬. উইলিয়াম টি.জি. মর্টন (1819 – 1868) আমেরিকান ডেন্টিস্ট যিনি এনেস্থেটিকের ব্যবহারের পথিকৃত।

৩৭. গুগলিয়েলমো মার্কনি (1874 – 1937) ইতালীয় প্রকৌশলী যিনি রেডিও সংক্রমণ বিকাশে সহায়তা করেছিলেন।

৩৮. অ্যাডল্ফ হিটলার (1889 – 1945) – নাজি জার্মানির স্বৈরশাসক।

৩৯. প্লেটো (424 –- 348 বিসি) – গ্রীক দার্শনিক।

৪০. অলিভার ক্রমওয়েল (1599-1658) – ইংরেজি গৃহযুদ্ধের সংসদ সদস্যগণ।

৪১. আলেকজান্ডার গ্রাহাম বেল (1847 – 1922) – টেলিফোনের স্কটিশ উদ্ভাবক।

৪২. আলেকজান্ডার ফ্লেমিং (1881-1955) স্কটিশ জীববিজ্ঞানী যিনি পেনিসিলিন আবিষ্কার করেছিলেন।

৪৩. জন লক (1632-1704) ইংরেজি রাজনৈতিক দার্শনিক। লক উদার গণতন্ত্র এবং একটি সামাজিক চুক্তির একটি তত্ত্ব প্রচার করেছিলেন।

৪৪. লুডভিগ ভ্যান বিথোভেন (1770 – 1827) ধ্রুপদী ও রোমান্টিক সময়ের জার্মান সুরকার।

৪৫. ওয়ার্নার হাইজেনবার্গ (১৯০১-১7676)) জার্মান তাত্ত্বিক পদার্থবিদ – কোয়ান্টাম মেকানিক্সের অন্যতম পথিকৃৎ।

৪৬. লুই ডাগুয়েরে (1787–1851) ফরাসি শিল্পী এবং ফটোগ্রাফার, যিনি ক্যামেরার আবিষ্কারের জন্য কৃতিত্বপ্রাপ্ত।

৪৭. সাইমন বলিভার (1783 – 1830) – লাতিন আমেরিকার দেশগুলির মুক্তিদাতা।

৪৮. রিনি ডেসকার্টস (1596 – 1650) ফরাসি দার্শনিক এবং গণিতবিদ। “আমি মনে করি, তাই আমি আছি।”

৪৯. মাইকেলেলঞ্জেলো (1475 – 1564) রেনেসাঁর ভাস্কর, চিত্রশিল্পী এবং স্থপতি।

৫০. পোপ আরবান II (1042 – 29 জুলাই 1099) প্রভাবশালী পোপ যিনি পবিত্র ভূমিতে প্রথম ক্রুসেডের আদেশ দিয়েছিলেন এবং পপাল কোর্ট স্থাপন করেছিলেন।

৫১. উমর ইবনুল খাত্তাব (৫ 58৪ খ্রিস্টাব্দ – 64৪৪ খ্রিস্টাব্দ) শক্তিশালী মুসলিম খেলাফত এবং মুহাম্মদের প্রবীণ সহচর। সুন্নি ইসলামের প্রভাবশালী ব্যক্তিত্ব।

৫২. আসোকা (সি। 260 – 232 বিসি) শক্তিশালী ভারতীয় রাজা যিনি বৌদ্ধ ধর্মে ধর্মান্তরিত হওয়ার আগে এবং একটি শান্তিপূর্ণ পদ্ধতির অনুসরণে বিজয়ের মাধ্যমে বিশাল সাম্রাজ্য প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।

৫৩. সেন্ট অগাস্টিন (৩৫৪ – ৪৩০) প্রভাবশালী খ্রিস্টান সাধু ও লেখক, যিনি পশ্চিমা খ্রিস্টান চিন্তাধারাকে অনেকটা আকার দিয়েছেন।

৫৪. উইলিয়াম হার্ভে (1578 – 3 জুন 1657) ইংরেজী চিকিত্সক যিনি দেহে রক্ত ​​কীভাবে সঞ্চালিত হয়েছিল তা বোঝার জন্য অবদান রেখেছিলেন।

৫৫. আর্নেস্ট রাদারফোর্ড (1871 – 1937) এনজেড জন্মগ্রহণ করেছিলেন ব্রিটিশ পদার্থবিদ যিনি আবিষ্কার করেছিলেন।

৫৬. আর্নেস্ট রাদারফোর্ড (1871 – 1937) এনজেড জন্মগ্রহণ করেছিলেন ব্রিটিশ পদার্থবিজ্ঞানী যিনি পারমাণবিক পদার্থবিজ্ঞানে আবিষ্কার করেছিলেন। পরমাণুর বিভাজন সম্পর্কে তাঁর কাজ ছিল পারমাণবিক বিজ্ঞানের বিকাশের জন্য প্রভাবশালী।

৫৭. জন ক্যালভিন (1509 – 27 মে 1564) খ্রিস্টান ধর্মতত্ত্ববিদ যিনি প্রোটেস্ট্যান্ট খ্রিস্টান ধর্মের একটি কঠোর ব্র্যান্ড গড়ে তুলেছিলেন যা পূর্বনির্ধারনের মতবাদকে জোর দিয়েছিল।

৫৮. গ্রেগর মেন্ডেল (1822 – 1884) চেক / অস্ট্রিয়ান বিজ্ঞানী এবং ফ্রিয়ার – যিনি জিনতত্ত্বের আধুনিক বিজ্ঞান প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।

৫৯. ম্যাক্স প্ল্যাঙ্ক (1858 – 1947) জার্মান তাত্ত্বিক পদার্থবিজ্ঞানী যিনি কোয়ান্টাম পদার্থবিজ্ঞানের একটি তত্ত্ব তৈরি করেছিলেন এবং শক্তি কোয়ান্টা আবিষ্কার করেছিলেন।

৬০. জোসেফ লিস্টার (1827 – 1912) ব্রিটিশ সার্জন যিনি নির্বীজন এবং এন্টিসেপটিক সার্জারি ব্যবহারের পথিকৃত করেছিলেন।

৬১. নিকোলাস অগস্ট অটো (1832 – 1891) জার্মান ইঞ্জিনিয়ার যিনি পেট্রোল চালানোর জন্য সংকুচিত চার্জ অভ্যন্তরীণ জ্বলন ইঞ্জিন তৈরি করেছিলেন।

৬২. ফ্রান্সিসকো পিজারো (1471 – 1541) স্প্যানিশ কনকুইস্টাদর যিনি ইনকা স্পেনের হয়ে দাবী করেছিলেন।

৬৩. হার্নান্দো কর্টেস (1485 – 1547) স্প্যানিশ কনকুইস্টাদর যিনি আধুনিক সময়ের মেক্সিকোয়ের অ্যাজটেক ভূমি জয় করেছিলেন।

৬৪. টমাস জেফারসন (1743 – 1826) মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের তৃতীয় রাষ্ট্রপতি। মার্কিন স্বাধীনতার ঘোষণাপত্রের মূল লেখক।

৬৫. কুইন ইসাবেলা প্রথম (1451 – 1504) ক্যাসিটিলের রানী, তিনি স্পেনের একটি শক্তিশালী এবং একীভূত রাজ্য তৈরি করতে সহায়তা করেছিলেন যার প্রভাব আমেরিকাতে ছড়িয়ে পড়ে।

৬৬. জোসেফ স্ট্যালিন (1878 – 1953) 1924 সাল থেকে তাঁর মৃত্যু পর্যন্ত সোভিয়েত ইউনিয়নের পরম শাসক। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সোভিয়েত ইউনিয়নের নেতৃত্বে।

৬৭. জুলিয়াস সিজার (100 খ্রিস্টপূর্ব – 44 বিসি) রোমান শাসক যিনি রোমান প্রজাতন্ত্রের মৃত্যুর তদারকি করেছিলেন রোমান সম্রাটের সাথে প্রতিস্থাপন করা হবে। জঙ্গিভাবে রোমের শক্তি জোরদার করেছিল।

৬৮. উইলিয়াম বিজয়ী (1028 – 1087) ইংল্যান্ডের প্রথম নরম্যান কিং।

৬৯. সিগমুন্ড ফ্রয়েড (১৮66 – ১৯৯৯) একজন অস্ট্রিয়ান নিউরোলজিস্ট যিনি মনোবিজ্ঞান প্রতিষ্ঠা করেছিলেন, যা অবচেতন, স্বপ্ন এবং মানুষের মনের তদন্তের সাথে জড়িত।

৭০. এডওয়ার্ড জেনার (1749 – 1823) বিশ্বের প্রথম ভ্যাকসিন (স্মার্টপক্স ভ্যাকসিন) তৈরি করেছে। ইমিউনোলজির জনক হিসাবে পরিচিত।

৭১. উইলহেম কনরাড রেন্টজেন (1845 – 1923) জার্মান পদার্থবিদ যিনি বৈদ্যুতিন চৌম্বক তরঙ্গ বা এক্স-রে আবিষ্কার করেছিলেন।

৭২. জোহান সেবাস্তিয়ান বাচ (1685 – 1750) সুরকার এবং জীববিদ যিনি বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দর সংগীত তৈরি করেছিলেন।

৭৩. লাও তজু (খ্রিস্টপূর্ব 6th ষ্ঠ শতাব্দী -) তাও তে চিং এর লেখক এবং তাওবাদের প্রতিষ্ঠাতা।

৭৪. ভোল্টায়ার (1694 – 1778)। ইউরোপীয় আলোকিতকরণের একটি মূল চিত্র। তাঁর ব্যঙ্গাত্মক রচনাগুলি ফরাসী বিপ্লবে ভূমিকা পালন করেছিল।

৭৫. জোহানেস কেপলার (1571 – 1630) জার্মান গণিতবিদ এবং জ্যোতির্বিদ যিনি গ্রহের গতির আইন তৈরি করেছিলেন।

৭৬. এনরিকো ফার্মি (1901 – 1954) ইতালিয়ান-আমেরিকান পদার্থবিদ যিনি প্রথম পারমাণবিক চুল্লি তৈরি করেছিলেন।

৭৭. লিওনহার্ড অয়লার (1707 – 1783) সুইস গণিতবিদ যিনি ক্যালকুলাস এবং গ্রাফ তত্ত্বে বিস্তৃত আবিষ্কার করেছিলেন।

৭৮. জিন-জ্যাক রুশিউ (1712-1778) – ফরাসী দার্শনিক, সামাজিক চুক্তির লেখক।

৭৯. নিকোলি ম্যাকিয়াভেল্লি (1469 – 1527) ইতালীয় কূটনীতিক এবং রেনেসাঁ লেখক রাজনৈতিক বিজ্ঞানের জনক হিসাবে বিবেচনা করেছিলেন।

৮০. টমাস মালথাস (1766 – 1834) ইংরেজ পণ্ডিত যিনি ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন।

৮১. জন এফ কেনেডি (1917 – 1963) মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের 38 তম রাষ্ট্রপতি। স্নায়ুযুদ্ধের উচ্চতায় পরিবেশন করা হয়েছে এবং কিউবার ক্ষেপণাস্ত্র সঙ্কটকে হ্রাস করতে সহায়তা করেছে।

৮২. গ্রেগরি পিনকাস (১৯০৩ – ১৯6767) আমেরিকান জীববিজ্ঞানী যিনি মৌখিক গর্ভনিরোধক বড়ি তৈরি করেছিলেন।

৮৩. মণি (২১6 -) ইরানী ম্যানিচাইজমের প্রতিষ্ঠাতা, জ্ঞানবাদী ধর্ম যা এককালের জন্য খ্রিস্ট ধর্মের বিরোধী ছিল।

৮৪. লেনিন (1870 – 1924) রাশিয়ান বিপ্লবের নেতা এবং 1917 থেকে 1924 পর্যন্ত নতুন কমিউনিস্ট শাসনকর্তা।

৮৫. সুই ওয়েন তি (541 – 604) চীনের সুই রাজবংশের প্রতিষ্ঠাতা এবং 589 সালে চীনকে পুনরায় একত্রিত করেছেন।

৮৬. ভাস্কো দা গামা (১৪60০ -১ )২৪) পর্তুগিজ এক্সপ্লোরার, ভারতে পৌঁছে এবং সাম্রাজ্যবাদের পথ তৈরির প্রথম ইউরোপীয়।

৮৭. সাইরাস দ্য গ্রেট (600০০ – ৫৩০ খ্রিস্টপূর্বাব্দ) প্রথম পার্সিয়ান সাম্রাজ্য অচামেনিড সাম্রাজ্যের প্রতিষ্ঠাতা। তুলনামূলকভাবে আলোকিত শাসক।

৮৮. পিটার দ্য গ্রেট (1721 – 1725) রাশিয়ান সম্রাট যিনি রাশিয়ার ইউরোপীয় শক্তি তৈরি করতে জারসিস্ট সাম্রাজ্যের প্রসার ঘটিয়েছিলেন।

৮৯. মাও সেতুং (1893 – 1976) কমিউনিস্ট বিপ্লবের নেতা এবং 1949-1974 সাল থেকে চীনের একনায়ক।

৯০. ফ্রান্সিস বেকন (1561 – 1626) বৈজ্ঞানিক পদ্ধতির স্রষ্টা এবং আলোকিতকরণের বৈজ্ঞানিক বিপ্লবের মূল ব্যক্তিত্ব।

৯১. হেনরি ফোর্ড (1863 – 1947) ফোর্ড মোটর কোম্পানির মালিক। বিপ্লব গণ-উত্পাদন কৌশল

৯২.মেনসিয়াস (৩৮৫-৩০৩ বিবিসি) চীনা দার্শনিক কনফুসিয়ানিজমের অন্যতম প্রধান অনুবাদক।

৯৩. জোরোস্টার (খ্রিস্টপূর্ব 1200 খ্রিস্টাব্দ) ইরানী নবী যিনি জোরোস্ট্রিয়ানিজম ধর্ম প্রতিষ্ঠা করেছিলেন।

৯৪. কুইন এলিজাবেথ প্রথম (1533 – 1603) ইংল্যান্ডের রানী 1558 থেকে 1603 সালে তার মৃত্যুতে। স্পেনীয় আরমাদাকে পরাজিত করে প্রোটেস্ট্যান্ট দেশ হিসাবে ইংল্যান্ডের সিমেন্ট ইংল্যান্ড।

৯৫. মিখাইল গর্বাচেভ (১৯৩১ -) সোভিয়েত কমিউনিস্ট পার্টির নেতা যিনি পূর্ব ইউরোপকে গণতন্ত্রের জন্য উন্মুক্ত করার জন্য – পেরেস্ট্রোইকা এবং গ্লাসনস্ট সংস্কারের পথ অনুসরণ করেছিলেন।

৯৬. মেনস গ। 3000 খ্রিস্টপূর্ব মিশরীয় ফেরাউন যারা প্রথম রাজবংশের সন্ধানের জন্য আপার এবং নিম্ন মিশরকে এক করেছিলেন।

৯৭. শার্লম্যাগনে (742 – 814) সংযুক্ত ইউরোপ ক্যারোলিংিয়ান সাম্রাজ্য গঠনের জন্য। রোমের পতনের পর প্রথম পশ্চিম সম্রাট।

৯৮. ইলিয়াড এবং ওডিসি রচনা করেছেন হোমার গ্রীক কবি।

৯৯. জাস্টিনিয়ান প্রথম (482 – 565) পূর্ব রোমান সাম্রাজ্যের সম্রাট।

১০০. মহাবীর (খ্রিস্টপূর্ব 6th ষ্ঠ শতাব্দী) জৈন ধর্মের প্রধান ব্যক্তিত্ব।

মাইকেল এইচ হার্ট এর বই থেকে সংগ্রহিত।

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *